Deprecated: mysql_connect(): The mysql extension is deprecated and will be removed in the future: use mysqli or PDO instead in /home/sumon09/public_html/include/config.php on line 2
 চাটমোহরে বাসমতি ধানের চাষ বাড়ছে

১৯ আগষ্ট ২০১৮


হোম   »   কৃষি তথ্য   »   কৃষি পণ্য  
চাটমোহরে বাসমতি ধানের চাষ বাড়ছে

পাবনার চাটমোহরে বাসমতি ধান চাষে কৃষকদের আগ্রহ দিন দিন বাড়ছে। এরই মধ্যে বাসমতি ধানের পরীক্ষামূলক চাষ করে আশাতীত ফলন পাওয়া গেছে। অল্প সময় ও অল্প খরচে বেশি ফলন পাওয়ায় চাটমোহর উপজেলার কৃষকদের মাঝে বাসমতি চিকন ধান ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে।
কৃষকদের সঙ্গে আলাপ করে ও উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বাসমতি চিকন ধান যে কোনো মৌসুমেই আবাদ করা যায়। এ ধানের চারা শীত সহনশীল। তবে আলু ও আগাম সরিষা তোলার পর এ জাতের ধান চাষ লাভজনক। এ ধানের বৈশিষ্ট্যগুলোর মধ্যে অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো—অল্প সময়ে বেশি ফলন পাওয়া যায়, চাল সুগন্ধি ও চিকন, বিঘাপ্রতি ২৫ থেকে ২৮ মণ হারে ফলন পাওয়া যায়। এ ধান অতি স্বল্প মেয়াদি (১৩২-১৩৫ দিন), প্রতি বিঘায় বীজের পরিমাণ ২ কেজি, একটি ধান গাছের এক গুছিতে কুশির সংখ্যা ২৫-২৮টি, ৮০ শতাংশ ধান পাকলেই কেটে মাড়াই করা যায়। এসব বৈশিষ্ট্যের কারণে কৃষকরা আগ্রহী হয়ে উঠেছে।

বাজারে প্রতি কেজি এ ধান বীজ ১৫০ টাকায় পাওয়া যায়। কৃষি বিভাগ জানায়, রবি মৌসুমে চাটমোহরে প্রায় ২শ’ বিঘা জমিতে বাসমতি ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধার্য করা হয়েছে। এ ব্যাপারে চাটমোহর উপজেলা কৃষি বিভাগের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামান জানান, এ ধান চাষ লাভজনক। চাটমোহর কৃষি বিভাগ থেকে কৃষকদের এ ধান চাষে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। এরই মধ্যে পরীক্ষামূলক এ ধান চাষ করে আমরা আশাতীত ফলন পেয়েছি। তিনি আরও বলেন, বাসমতি চিকন ধান বীজ এখন উপজেলা কৃষি বিভাগে পাওয়া যাচ্ছে। সেই সঙ্গে আগ্রহী কৃষকদের এ ধান চাষে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।
পাতাটি ২৭১৯ প্রদর্শিত হয়েছে।
এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

»  দেশের দক্ষিণাঞ্চলে লবনাক্ত জমিতে ভূট্রা চাষ

»  জয়পুরহাটে শসা চাষে স্বাবলম্বী কৃষক

»  কলাপাড়ায় তরমুজ চাষে সাফল্য

»  কেশবপুরে জমে উঠেছে আখ হাট

»  পদ্মার চরে বাদাম চাষে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে