২৬ জুলাই ২০১৭


হোম   »   কৃষি তথ্য   »   কৃষি পণ্য  
কলাপাড়ায় তরমুজ চাষে সাফল্য

গ্রীষ্মের প্রচন্ড গরমে তৃষ্ণার্থ মানুষের প্রাণ জুড়াতে তরমুজের জুড়ি নেই। একসময় দেশের গুটিকয়েক জেলায় তরমুজের আবাদ হতো। বর্তমান দেশের অনেক জেলায় তরমুজের ব্যাপক আবাদ হচ্ছে।

চলতি মৌসুমে কলাপাড়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় তরমুজের বাম্পার ফলনে কৃষকদের মুখে আনন্দের হাসি ফুটে উঠেছে। ধানখালী ,লালুয়া ,ধুলাসার লতাচাপলী ও খাপড়াভাঙ্গা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় কৃষকরা উন্নতজাতের তরমুজের বীজ বপন করে বিগত বছরের চেয়ে এ বছর তরমুজ ফলনে ব্যাপক সারা জাগিয়েছে।কলাপাড়া কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়,এক সময় উপকূলীয় কলাপাড়ায় লবনাক্ততার কারনে তরমুজসহ অন্যান্য রবি শস্য উৎপাদন হতোনা। ধীরে ধীরে লবনাক্ততা কমে যাওয়ার ফলে কৃষকরা তরমুজসহ রবিশস্য চাষ শুরু করে। বর্তমানে এ কৃষকদের কাছে তরমুজ অর্থকরি ফষল হিসেবে ব্যাপক পরিচিতি পেয়েছে। এবার কলাপাড়া উপজেলায় প্রায় ১৫’শ হেক্টর জমিতে তরমুজ চাষাবাদের লক্ষ্য মাত্রা ধরা হয়েছে।

বে-সরকারী সংস্থা ব্র্যাক কলাপাড়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সবক’টি ইউনিয়নের ভূ-ভাগ তরমুজ চাষের উপযোগী হলেও বে-সরকারী সংস্থা ব্র্যাক কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী ও লালুয়া এ দু’টি ইউনিয়নের কৃষকদের মাঝে প্রতি একর জমিতে ৫ হাজার টাকা হিসেবে অনুদান প্রদান করে তরমুজ চাষীদের চাষে উদ্বুদ্ধ করেন। এ টাকা দিয়ে ওইসব কৃষকরা উন্নত জাতের বীজ ,রাসায়নিক সার, কীটনাশক ওষুধ প্রয়োগ করে ৪৫ একর জমিতে ৫৮ জন উপকার ভোগী কৃষকরা এ বছর তাদের উৎপাদিত তরমুজ প্রতি একরে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি করবে বলে জানান। লালুয়া ইউনিয়নে তরমুজ চাষী হালিম গাজী জানান, এক সময় অভাবের সংসারে স্ত্রী, তিন ছেলে সহ পাঁচ জনের সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হয়েছিলাম। গত বছর তরমুজ চাষে লোকসান হওয়ার কারনে এক পর্যায়ে উৎসাহ হারিয়ে ফেলি। ঠিক ওই মূহুর্তে ব্র্যাক কলাপাড়ার সহায়তায় একর প্রতি ৫ হাজার টাকা পেয়ে পুনরায় তরমুজ চাষের উৎসাহ জাগে।

তিনি আরও জানান, এ বছর ১ একর জমিতে তরমুজ চাষ শুরু করি। জমি চাষ, সেচ ও সার বাবদ ৩৫ হাজার টাকা খরচ করেছি। তবে তিনি আশা করনে এ বরি মৌসুম শেষে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকার তরমুজ বিক্রি হবে। এ ব্যাপারে কলাপাড়া উপজেলা ব্র্যাক এরিয়া ম্যানেজার (সি আই পি) মো.তাহমিদুর রহমান জানান, কৃষকদের সাফল্যে আমরাও খুশি। তবে আগামী আউশ ও আমন মৌসুমে কৃষকদের মাঝে এ সহয়াতা অব্যাহত থাকবে।
পাতাটি ৩৭৬৬ প্রদর্শিত হয়েছে।
এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

»  দেশের দক্ষিণাঞ্চলে লবনাক্ত জমিতে ভূট্রা চাষ

»  জয়পুরহাটে শসা চাষে স্বাবলম্বী কৃষক

»  কলাপাড়ায় তরমুজ চাষে সাফল্য

»  কেশবপুরে জমে উঠেছে আখ হাট

»  পদ্মার চরে বাদাম চাষে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে