২১ জানুয়ারী ২০১৯


হোম   »   কৃষি তথ্য   »   কৃষি সংবাদ  
মাটির গুণাগুণ ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগ

দক্ষিণাঞ্চলে বৈরী জলবায়ুর আগ্রাসনে মাটির উর্বরতা শক্তি ক্রমেই হ্রাস পাচ্ছে। তাছাড়া বছরের পর বছর অধিক রাসায়নিক সার ও কীটনাশক ব্যবহারের ফলে যাদুর মত উত্পাদন বৃদ্ধি পেলেও হারিয়ে যাচ্ছে মাটির সকল গুণাগুণ। ইতোমধ্যে এ অঞ্চলে অনেক জেলায় তার প্রভাব পড়েছে। কৃষকরা গত কয়েক বছর বিঘাপ্রতি ৩০ থেকে ৪০ মণ ধান উত্পাদন করলেও এখন তা নেমে এসেছে ১৮ মণের নিচে। শাক-সবজির ক্ষেত্রেও তাই। কৃষিবিদরা এর কারণ হিসেবে রাসায়নিক সারের পাশপাশি জৈবসার ব্যবহার না করায় মাটি তার সকল রস হারিয়ে পাথরে পরিণত হচ্ছে বলে মনে করছেন।

সরকারের কৃষি বিভাগ কৃষকদের জৈবসার ব্যবহারে অনুপ্রাণিত করছে। কৃষি বিভাগ ছাড়াও জৈবসার ব্যবহার বৃদ্ধির জন্য এগিয়ে এসেছে সরকার অনুমোদিত অনেক এগ্রো প্রতিষ্ঠান। দক্ষিণাঞ্চলের ৫টি জেলার প্রায় প্রতিটি ইউনিয়নে এই প্রতিষ্ঠানগুলো মাটির জৈবশক্তি ফিরিয়ে আনতে কৃষকদের সাথে সেমিনার, গোলটেবিল বৈঠক, মাঠ দিবস, উঠান বৈঠক ও বাইসকোপসহ সচেতনতামূলক নানা কর্মসূচি চলমান রেখেছে।

যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার কৃষক মুসা জানান, এ অঞ্চলের কৃষকরা উঠান বৈঠক ও বাইসকোপ দেখে মাটির গুণাগুণ নিয়ে এখন অনেকটাই সচেতন।

আরকে এগ্রোর নির্বাহী পরিচালক ডাঃ আব্দুস সামাদ জানান, শুধু ব্যবসায়িক চিন্তা থেকে নয় মাটির জৈব উপাদানকে ফিরিয়ে আনতে আমাদের এ কার্যক্রম। আমি মনে করি সকল এগ্রো কোম্পানিগুলোর উচিত মাটির স্বাস্থ্য রক্ষার্থে একযোগে কাজ করা।

লেখক: দানিয়েল সুজিত বোস
পাতাটি ২৩১৭ প্রদর্শিত হয়েছে।
এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

»  আগামী বাজেটে কৃষিখাতে ভর্তুকির পরিমাণ বাড়ছে

»  পেঁপের নতুন জাত উদ্ভাবন

»  কৃষিতে ৫৫ দফা সুপারিশ

»  ফরিদপুরের কালো সোনা

»  গ্রীষ্মকালীন তুলার নতুন জাত উদ্ভাবন